Breaking News

এক পরিবারের 9 জনকে হত্যা করে কুয়োতে ফেলে দেওয়া হয়, বেরিয়ে এল এক ভয়ঙ্কর ঘটনা


এক পরিবারের 9 জনকে হত্যা করে কুয়োতে ফেলে দেওয়া হয়, বেরিয়ে এল এক ভয়ঙ্কর ঘটনা

এক পরিবারের 9 জনকে হত্যা করে কুয়োতে ফেলে দেওয়া হয়, বেরিয়ে এল এক ভয়ঙ্কর ঘটনা


কয়েকদিন আগে একসঙ্গে 9 জনের মৃত্যুর খবর আসে সংবাদমাধ্যমে। অবশেষে সেই মৃত্যুর রহস্য উদ্ধার করল পুলিশ। পুলিশ জানায় একই পরিবারের 6 জনকে খুন করা হয়।

এ পরিবারটি ছিল পশ্চিমবঙ্গের তেলেঙ্গানার বাসিন্দা। মোঃ মাসু ও তার পরিবারের সব সদস্যের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় সেই কুয়ো থেকে। প্রাথমিকভাবে এটিকে আত্মহত্যা বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু পরে জানা যায়, আসলে অন্য এক শ্রমিক তাদের খুন করেছে। আরো একটি ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার জন্য এই হত্যা কার্য করা হয় বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পরুন- সেন্টমার্টিন এর মালিকানা দাবি করে মানচিত্র প্রকাশ করে মিয়ানমার

ধৃত ব্যক্তির অনুসারে সঞ্জয় কুমার যাদব নামের এক ব্যক্তি মোট 10 জনকে খুন করেছে। জানা গেছে হত্যাকারী বিহারের বাসিন্দা। মৃতদের সকলকেই খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাওয়ানো হয়েছিল। এদের সকলের মৃতদেহ পাওয়া গিয়েছিল গ্রামের এক পরিত্যক্ত কুয়োতে।

পুলিশের বক্তব্য অনুসারে, সঞ্জয়ের সঙ্গে এক মহিলার সম্পর্ক ছিল। পশ্চিমবঙ্গের অধিবাসী মাসুদ এর আত্মীয় ওই মহিলা স্বামী পরিত্যাক্তা হয়ে তিন সন্তানসহ ওখানেই থাকতেন  এবং একটি ব্যাগ তৈরি কোম্পানিতে কাজ করতেন। পরবর্তী সময়ে ওই মহিলার 15 বছর বয়সী মেয়ের দিকে সঞ্জয়ের কু নজর পরে। পরবর্তী সময়ে মহিলাটি তার 15 বছর বয়সী মেয়ে কে রক্ষা করার জন্য সঞ্জয় কে বিয়ে করতে চাপ দিতে শুরু করে। এরপর সঞ্জয় ওই মহিলাকে কলকাতা নিয়ে যাবার নাম করে রাস্তায় কোন করে মৃতদেহ ফেলে দিয়ে ফের চলে আসে।


এই ঘটনায় অন্যদের সন্দেহ হতে তারা সঞ্জয় কে চেপে ধরে এবং পুলিশকে অভিযোগ জানায়। এর পরেই সঞ্জয় 20 তারিখ রাতে সকলের খাবারের সঙ্গে করা ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে দেয় এবং গভীর রাতে মৃতদেহগুলো এক এক করে ওই পরিত্যক্ত কুয়োর  মধ্যে ফেলে দেয়। জেরার মুখে ভেঙে পড়ে সঞ্জয় এই হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করে নেয়।

Mysterious World

No comments