Breaking News

Blood Pressure ! রক্তচাপ হঠাৎ করে বেড়ে গেলে কি করবেন? জেনে নিন!

Blood Pressure ! রক্তচাপ হঠাৎ করে বেড়ে গেলে কি করবেন? জেনে নিন! 



Blood Pressure ! রক্তচাপ হঠাৎ করে বেড়ে গেলে কি করবেন? জেনে নিন!

Blood Pressure ! রক্তচাপ হঠাৎ করে বেড়ে গেলে কি করবেন? উচ্চ রক্তচাপ যার ছিল তারও হঠাৎ করে রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে। যার কখনো ছিল না তারও বেড়ে যেতে পারে। এমন হলে সেক্ষেত্রে প্রথম কথা হুড়োহুড়ি করবেন না। আপনি যদি দাঁড়ানো থাকেন তাহলে বসে যান। বসে থাকলে শুয়ে পড়ুন। স্বাভাবিকভাবে চোখ বন্ধ করে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। মনে করার চেষ্টা করুন সকাল বেলার যে প্রেশারের ওষুধ খাওয়ার কথা ছিল তা খেয়েছেন কিনা। যদি উত্তর হ্যাঁ বাচক হয় তাহলে আপনি দুই ঘণ্টা বিশ্রাম নিয়ে দেখতে পারেন কি হচ্ছে। আরও যদি আপনার কখনো ব্লাড প্রেসার না থাকে তাহলে দেখতে হবে যে কেন এমন হয় কেন প্রেসার বেড়ে।

যে কারণে এরকম Blood Pressure বা রক্তচাপ বেড়ে যেতে পারে


এমন যদি হয় তাহলে  আপনি একদম চুপচাপ করে পাশে একজনকে রেখে ঘরে কিছুক্ষণ ঘুমিয়ে থাকতে পারেন এবং ভাবুন যে কিছুই হয়নি। সেক্ষেত্রে আপনি পরিত্রান পেতে পারেন। যদি দেখা যায় যে তবুও আপনার ব্লাড প্রেসার বাড়তেই থাকে এবং আপনার চটপটানি করতে হচ্ছে মাথায় কেমন লাগছে তাহলে মাথায় রাখতে হবে যে আপনার কি স্ট্রোক হচ্ছে কিনা। সেক্ষেত্রে প্রথম কথা হচ্ছে কোন ওষুধ আপনি খাবেন না। যদি কোন জরুরী ওষুধ খাওয়ার অভ্যাস থাকে যেমন প্রেশারের ওষুধ ডায়াবেটিসের ওষুধ এটুকু শুধু আপনি খান। অর্থাৎ আপনি উপরের প্রেসার ওষুধ ওইটুকু লেভেলে রাখার চেষ্টা করুন যেটুকু আপনার স্বাভাবিক।

বেশি ডাক্তারি করা যাবে না কারণ কিছু কিছু কারন আছে যেমন মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণ অনেক প্রেসার বেড়ে যায়। তখন যদি আবার সে ক্ষেত্রে আমরা পেশাব করে ফেলি তখন আপনার কিডনি এবং হার্ড বিকল্প হয়ে যেতে পারে। আপনি 12 ঘণ্টা দেখেন তারপর আপনি ইমারজেন্সিতে চলে যান। আর যদি মনে করেন যে না আপনার প্রেসার বেড়ে যাচ্ছে এবং প্রচন্ড বুকে ব্যথা হয় তাহলে বুঝতে হবে যে আপনার হার্ট অ্যাটাক হয়েছে। সেক্ষেত্রে তখনই আপনি দ্রুত ইমারজেন্সিতে চলে যান। যদি আপনার non-cash থাকে যে আপনি হার্টের রোগী আপনার প্রেসার আছে হঠাৎ বেড়ে গেছে সে ক্ষেত্রে ডাক্তাররা বলেন যে, আমরা প্রত্যেক রোগীকে লিখে দেই যে বুকে ব্যথা হলে বা প্রেসার বেড়ে গেলে  দুইবার চাপ দিবেন।

 এই চাপ দেওয়ার ব্যাপারে আপনার কিছু নিয়ম মানতে হবে। প্রথমে আপনার ডান হাতের মাধ্যমে ধরুন তারপর উপর-নিচ ভালোভাবে বাঁকান। বাঁকানোর পর জিব্বার নিচে একটি চাপ দিন। চোখ বন্ধ করুন 30 সেকেন্ড পরে আবার পূর্বের নিয়মে উপর-নিচ করে বাকানোর পর আবার যে এবার নিচে আরেকটি চাপ দিন। 5 মিনিট অপেক্ষা করেন যদি প্রেসার না কমে উপরের প্রেসার টার দিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাহলে পাঁচ মিনিট পর আবার একটি চাপ দিবেন জিব্বার নিচে। দুইবার মাপার পরেও যদি উপরের প্রেশারটা না কমে তাহলে আপনি তিন বারের সময় আবার একই নিয়মে চাপ দিন। এভাবেও যদি না কমে এবং অশান্তি বেড়ে যায় তাহলে তিনটি জিনিস খেয়াল রাখতে হবে।


  • আপনার বুকে ব্যাথা হচ্ছে কিনা
  • আপনার শ্বাসকষ্ট হচ্ছে কিনা
  • আপনার অঙ্গ পতঙ্গ হাত-পা নাড়াতে কোন সমস্যা হচ্ছে কিনা


এই তিনটার যেকোনো একটি হলে আপনি আপনার নিকটস্থ কোন হাসপাতালে যান। একটি জিনিস মনে রাখতে হবে কিছু কিছু ঔষধ আপনার ব্লাড প্রেসার বাড়িয়ে দিতে পারে। স্টেট ওল্ড বলে একটি ওষুধ আছে যেটা এজমা রোগীদের দেওয়া হয়। এই ঔষধটি সেবনের ফলে ব্লাড প্রেসার হঠাৎ করে বেড়ে যেতে পারে। আপনি যে প্রেসক্রিপশন ফলো করছেন সেটার ভিতরে স্টেরয়েড আছে কিনা সেটা জানতে হবে।

বলা হয়ে থাকে এন এস 8 খেলেও ব্লাড প্রেসার হঠাৎ করে বেড়ে যেতে পারে। আপনি এমন কোন ব্যথার ওষুধ খাচ্ছেন কিনা এটাও খেয়াল রাখতে হবে। তারপর আবার ইজমা ট্রিটমেন্ট এর সময় আমরা কতগুলি ট্রিটমেন্ট দেই সেখানে হার্টের গতি বেড়ে যায়। হার্টের গতি বেড়ে গেলেও প্রেসার বেড়ে যায়। ব্লাড প্রেসার এর ব্যাপারে কথা হচ্ছে যদি সকালবেলায় ওষুধ খেতে ভুলে যান অথবা একটা ওষুধ যদি মিস হয় তাহলে ওই ঔষধটি আপনি খেতে পারেন। পাঁচ আতঙ্কিত হওয়ার কিছুই নেই।



No comments