Top 5 Mysterious & horror Place in Dhaka,Bangladesh ! ঢাকার ৫টি রহস্যময় স্থান।


Top 5 Mysterious & horror Place in Dhaka,Bangladesh ! ঢাকার ৫টি রহস্যময় স্থান।
Top 5 Mysterious & horror Place in Dhaka,Bangladesh ! ঢাকার ৫টি রহস্যময় স্থান।

* ঢাকার তেজগাঁও


 Top 5 Mysterious & horror Place in Dhaka,Bangladesh !।ঢাকার তেজগাঁও এর মনিপুরী এলাকায় একটি পুরনো খ্রিস্টান বাড়ি আছে। এই বাড়িতে ভাড়া থাকা সব ভাড়াটিয়ারা অদ্ভুত বিকট শব্দ শুনতে পায়। এবং অদ্ভুত ভূতের কাণ্ডখানা সম্মুখীন হন। অনেক গভীর রাতে বাড়ির নিচে উঠানের দোলনায় কাউকে দুলতে দেখা যায়।

অনেক গভীর রাতে ঘটনাটি দেখেছেন এমন লোকের সংখ্যা কম নয়। এছাড়াও বাড়ির ছাদে নাকি অনেক সময় অনেক রকম হইচই শোনা যায়। উক্ত বাড়িওয়ালার মেয়ে নাকি প্রায় 16 বছর আগে গলায় ফাঁস দিয়ে নিজ ঘরে মারা যায়। মেয়েটি মানসিকভাবে অসুস্থ ছিল। মেয়েটির আত্মহত্যার পর থেকেই এমন অদ্ভুত সব কাণ্ড ঘটে।


* ঢাকার এয়ারপোর্ট রোড


ঢাকার অন্যতম মহাসড়কগুলোর মধ্যে এয়ারপোর্ট রোড একটি। এখানে গভীর রাতে অস্বাভাবিক সব কান্ড দেখা যায়। গাড়ি চালাতে চালাতে গাড়িচালক দেখেন সাদা পোশাক একটি নারী। নারী টি অবিশ্বাস্য গতিতে গাড়ির দিকে এগিয়ে আসে। ভয় পেয়ে গাড়িচালক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেললে পরে দুর্ঘটনার শিকার হয়। এই চায়া কোন মানুষকে স্পর্শ কিংবা ক্ষতি বা আঘাত করে না। ভয় দেখিয়েই দুর্ঘটনা ঘটানো এর উদ্দেশ্য।

কাছেই গাড়ির ওপর থেকে কোন নিয়ন্ত্রণ না হারিয়ে ভয় না পেয়ে স্বাভাবিক থাকাই উত্তম। ধারণা করা যায় অনেক বছর আগে সেখানেই সড়ক দুর্ঘটনায় তার ও তার পরিবারের মৃত্যু হয়েছিল বলে প্রতিশোধ নিতেই সেও চায় এই একই ভাবে সবার মৃত্যু হোক। চলন্ত গাড়ি কে গভীর রাতে ভয় দেখিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। কারো মুখে জসিম উদ্দিন ও বিমান অফিসের মধ্যবর্তী সড়ক এলাকায় দেখা যায় ঐ মেয়েটি কে। কিন্তু দিনের বেলায় মেয়েটিকে দেখা যায় না।

* পুরান ঢাকার মিষ্টির দোকান



পুরান ঢাকাতে কিছু মিষ্টির দোকান আছে সেখানে কিছু লোক কয়েকদিন পর পর এসে রাত 8.00 দিকে প্রায় 10 থেকে 12 কেজি মিষ্টি নিয়ে যায়। তারা যে দোকানে ঢুকে লাইট বন্ধ করে দিতে বলে। অন্ধকারে তারা আসে এবং অন্ধকারেই তারা চলে যায়। ওই লোক গুলো আকারে অনেক লম্বা এবং আজ পর্যন্ত তাদের চেহারা কেউই দেখেনি ভালোভাবে। ধারণা করা হয় এরা জীন উপজাতিপুরান ঢাকার বেশিরভাগ মানুষই এদের কথা জানেন।

* লালবাগ কেল্লা


লালবাগ কেল্লা বাংলাদেশের  অন্যতম ও ঐতিহাসিক স্থান। যা মোগল আমলের স্থাপন করা হয়েছিল। লালবাগ কেল্লা কেউ ভুতের স্থান হিসেবে বেশ পরিচিত। কেউ কেউ বলে লালবাগের কেল্লায় শাহ শাহানুর এর কন্যা পরীবিবির আত্মাকে রাতের বেলায় ঘুরতে দেখা যায়। আবার মাথাবিহীন উল্টা পায়ের ঘোড়া কেউ নাকি রাতের বেলায় দেখা যায়। সেখানে স্থানীয় মসজিদে রাত তিনটায় অনেকে নামাজ পড়তে যায়। যদিও ফজরের নামাজের সময় 4:30 থেকে পাঁচটায়।

 সেখানে গেলে দেখা যায় কয়েকজন পরনে সাদা কাপড় পরা। তারা কাউকে দেখলে অস্বস্তিবোধ করেন। লালবাগ কেল্লার আরেকটি ভূতের স্থান হল লালবাগ কেল্লার সুরঙ্গ। এর ভিতর একবার কেউ গেলে আর ফিরে আসে না। কেউ কেউ বলে সুরঙ্গ টি এখান থেকে দ্বীপ পর্যন্ত পাওয়া যায়। আবার কেউ কেউ বলেন এটি টঙ্গী নদীতে পড়েছে।

কিন্তু কেউ জানেনা এর গভীরে কি রহস্য লুকিয়ে আছে। ব্রিটিশ আমলে একটি অনুসন্ধান দল দুইটি কুকুরকে গলায় চেইন বেঁধে সুড়ঙ্গের ভেতরে পাঠানো হয়। একটু পরে চেইন ধরে টান দিলে চীন আসলেও কুকুর দুটির নাম নিশানা পাওয়া যায়নি। এই ঘটনার পর ব্রিটিশ সরকারের পক্ষ থেকে সেই সুড়ঙ্গের মুখ বন্ধ করে দেওয়া হয় এবং সুড়ঙ্গটি আজও বন্ধ।

* মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়াম


মিরপুর ইনডোর স্টেডিয়ামে আগে যখন পুকুর ছিল তখন কিছুদিন পরপর একজন করে মানুষ নিয়ে যেত। একদিন দুপুর বেলা 6 নং সেকশনে নান্টু নামের একজন পুকুরে গোসল করতে নামে প্রতিদিনের মতোই। কিন্তু সেখান থেকে সে আর উঠে আসেনি সেই দিন। পুকুর পাড়ে তার সেন্ডেল লুঙ্গি গামছা সবই পড়ে থাকে।

 তারপর কয়েকদিন পর ডুবুরি এসে নান্টু মিয়াকে তন্ন তন্ন করে খুঁজেও কিন্তু তার কোন সন্ধান পায়নি। তারপর 24 ঘন্টা পর তার লাশ ভেসে উঠে। স্টেডিয়াম বানানোর সময়ও অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল।

Tag-বাংলাদেশের ভৌতিক কিছু স্থান,বাংলাদেশের রহস্যময় ৫টি স্থান,ঢাকার ৫টি রহস্যময় ভৌতিক জায়গা,পৃথিবীর রহস্যময় ৫টি স্থান,বাংলাদেশের ভয়ংকর ৫ টি জায়গা

Post a Comment

Previous Post Next Post